1. Shokti24TV2020@gmail.com : Shokti 24 TV admin :
রবিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০২:৫৫ অপরাহ্ন

ষষ্ঠ প্রদেশ দখল, দাবি তালেবানের

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
  • Update Time : সোমবার, ৯ আগস্ট, ২০২১
  • ২৮ Time View
চারদিনে ছয়টি প্রাদেশিক রাজধানী দখল নেওয়ার দাবি করেছে তালেবান।

আফগানিস্তানের উত্তরাঞ্চলীয় প্রদেশ সামানগানের রাজধানী আইবাক দখল করে নিয়েছে তালেবান। সোমবার (০৯ আগস্ট) শহরটির দখল নেয় তারা। এ নিয়ে চারদিনে ছয়টি প্রাদেশিক রাজধানী দখল নেওয়ার দাবি করেছে তালেবান।
এর আগে একদিনে তিনটি প্রাদেশিক রাজধানী নিজেদের দখলে নিয়েছে তারা।
এদিকে, শেবারগানে আফগান নিরাপত্তাবাহিনীর বিমান হামলায় দুই শতাধিক তালেবান নিহত হয়েছে বলে জানিয়েছে দেশটির প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়।
রোববার একদিনেই কুন্দুজ, সার-ই-পল ও তাকহার প্রদেশের রাজধানী দখলে নেয় তারা। দেশটির উত্তরাঞ্চলে কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই কুন্দুজ ও সার-ই-পলের পতন ঘটে। জারাঞ্জ ও শেবারগান দখল করার পর কৌশলগতভাবে গুরুত্বপূর্ণ কুন্দুজ নিজেদের নিয়ন্ত্রণে নেয়ার কথা জানিয়েছে তালেবান।
এর আগে ২৪ ঘণ্টার ব্যবধানে নিমরোজ ও জাওজান প্রদেশের রাজধানী দখল করে সরকারি বিভিন্ন স্থাপনা, গভর্নরের চত্বর নিয়ন্ত্রণ নেয় তালেবানরা। জাওজানের কারাগার দখল করে সেখানকার বন্দিদের ছেড়ে দেওয়া হয়।

তবে আফগান প্রশাসনের দাবি, কুন্দুজ ও শেবারগানের নিয়ন্ত্রণ এখনও সরকারের হাতে রয়েছে। শিগগিরই আফগান সরকার বিদ্রোহীদের দমন করবে বলেও হুঁশিয়ারি দিয়েছে ঘানি সরকার। এরমধ্যেই বিভিন্ন শহরে নিরাপত্তা বাহিনী ও তালেবানের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষ অব্যাহত আছে। এতে স্থানীয় নাগরিকরাও আফগান বাহিনীকে সহযোগিতা করছে।
শনিবার আফগানিস্তানের জাওজান প্রদেশের রাজধানী শেবারগানে মার্কিন বাহিনীর সহযোগিতায় তালেবানদের গোপন আস্তানা লক্ষ্য করে বিমান হামলা চালায় সরকারি বাহিনী। মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের বোমারু বিমান দিয়ে অভিযানের নির্দেশের পরপরই এ খবর পাওয়া গেলো। এতে দুই শতাধিক তালেবান নিহত হয়েছে বলে দাবি সরকারের। এতে তালেবানের বিপুল পরিমাণ অস্ত্র, গোলাবারুদ ও যানবাহন ধ্বংস হয় বলেও জানানো হয়।
এদিকে পাকিস্তানের সঙ্গে আফগানিস্তানের সীমান্ত ক্রসিংগুলোর অধিকাংশই তালেবানের নিয়ন্ত্রণে থাকায়, সেগুলো বন্ধ করে দিয়েছে জঙ্গিগোষ্ঠীটি। এতে, সীমান্তের দুই পাড়েই আটকা পড়েছেন হাজার হাজার আফগান বাসিন্দা।

ভুক্তভোগীরা বলেন, আমরা দুই দিন ধরে এখানে অপেক্ষা করছি কিন্তু সীমান্ত খুলে দেয়া হচ্ছে না। তারা অবৈধভাবে এটি বন্ধ করে রেখেছে। আরব রাষ্ট্রগুলোকে বলছি, আপনারা দয়া করে এই সীমান্ত খুলে দেয়ার ব্যবস্থা করুন।

আফগানিস্তান, ইরাকসহ মধ্যপ্রাচ্য ইস্যুতে বিতর্কিত ভূমিকা এবং ভুল নীতির কারণেই মানুষ দিনদিন পশ্চিমা রাষ্ট্রগুলোর ওপর থেকে আস্থা হারিয়ে ফেলছেন বলেও মনে করেন ব্রিটিশ পত্রিকা ফিনান্সিয়াল টাইমসের প্রধান অর্থনৈতিক বিশ্লেষক মার্টিন উলফ।
আফগানিস্তান, ইরাকসহ মধ্যপ্রাচ্য ইস্যুতে পশ্চিমা নীতি বারবার ভুল প্রমাণিত হয়েছে। তাদের ভূমিকা প্রশ্নবিদ্ধ হয়েছে। তাদের বিতর্কিত ভূমিকার বলি আফগানিস্তানসহ বিভিন্ন দেশ।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2021 Coder Boss
Design & Develop BY Coder Boss